০৮:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকের হামলা, গাড়ি ভাংচুর, দুই ডিবি পুলিশ আহত

 

আকরাম হোসেন রুমি
স্টাফ রিপোর্টার

গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলায় সনমানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হকের কর্মীদের হামলায় জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের দুই কনস্টেবল আহত হয়েছেন।

শনিবার (০৯ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সনমানিয়া ইউনিয়নের চর সনমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রবিবার (১০ মার্চ) দুপুরে কাপাসিয়া থানায় গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। কাপাসিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিবি পুলিশের আহত সদস্যরা হলেন কনস্টেবল বিপ্র দাস ও কনস্টেবল মাহমুদুল হাসান। তারা গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

হামলার শিকার মাইক্রোবাসের চালক সবুজ মিয়া বলেন, ‘নির্বাচনের পর ফল ঘোষণা শেষে পুলিশ সদস্যদের নিয়ে শনিবার সন্ধ্যার পর কেন্দ্র থেকে বের হচ্ছিলাম। এ সময় পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হকের কর্মীরা গাড়ি থামিয়ে হামলা চালান। একপর্যায়ে হামলাকারীরা হাতে থাকা লাঠি দিয়ে গাড়ির গ্লাস ভেঙে ফেলে। এ সময় গাড়িতে থাকা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের দুই কনস্টেবল আহত হন।’

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) লুৎফল কবীর বলেন, ‘আহতদের কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। আঘাত গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর মিয়া বলেন, এ ঘটনায় ১০ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ। তদন্তের মাধ্যমে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

শনিবার সনমানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে মোবারক হোসেন (ঘোড়া প্রতীক) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হক হেরে যান।

পুলিশের গাড়িতে হামলার বিষয়ে আব্দুল হক বলেন, ‘ফল ঘোষণার আগে আমার মার্কার কিছু ব্যালট পেপার বাইরে পাওয়া গেছে। এসব আমার কর্মীরা ভেতরে এনে দেওয়ার চেষ্টা করে। এটা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয়েছে। একপর্যায়ে অতি উৎসাহী জনতা উত্তেজিত হয়ে গণ্ডগোল সৃষ্টি করেছিল।’

Tag :

আপলোডকারীর তথ্য

Dainik Jobab

আমাদের অনলাইন নিউজপেপারে আপনাদের স্বাগতম। আমাদের সাথে থাকার জন্য আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।
জনপ্রিয় সংবাদ

চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকের হামলা, গাড়ি ভাংচুর, দুই ডিবি পুলিশ আহত

চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকের হামলা, গাড়ি ভাংচুর, দুই ডিবি পুলিশ আহত

আপডেট সময় ০৪:৫২:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪

 

আকরাম হোসেন রুমি
স্টাফ রিপোর্টার

গাজীপুর জেলার কাপাসিয়া উপজেলায় সনমানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হকের কর্মীদের হামলায় জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের দুই কনস্টেবল আহত হয়েছেন।

শনিবার (০৯ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় সনমানিয়া ইউনিয়নের চর সনমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রবিবার (১০ মার্চ) দুপুরে কাপাসিয়া থানায় গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। কাপাসিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিবি পুলিশের আহত সদস্যরা হলেন কনস্টেবল বিপ্র দাস ও কনস্টেবল মাহমুদুল হাসান। তারা গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

হামলার শিকার মাইক্রোবাসের চালক সবুজ মিয়া বলেন, ‘নির্বাচনের পর ফল ঘোষণা শেষে পুলিশ সদস্যদের নিয়ে শনিবার সন্ধ্যার পর কেন্দ্র থেকে বের হচ্ছিলাম। এ সময় পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হকের কর্মীরা গাড়ি থামিয়ে হামলা চালান। একপর্যায়ে হামলাকারীরা হাতে থাকা লাঠি দিয়ে গাড়ির গ্লাস ভেঙে ফেলে। এ সময় গাড়িতে থাকা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের দুই কনস্টেবল আহত হন।’

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) লুৎফল কবীর বলেন, ‘আহতদের কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। আঘাত গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর মিয়া বলেন, এ ঘটনায় ১০ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ। তদন্তের মাধ্যমে অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

শনিবার সনমানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে মোবারক হোসেন (ঘোড়া প্রতীক) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হক হেরে যান।

পুলিশের গাড়িতে হামলার বিষয়ে আব্দুল হক বলেন, ‘ফল ঘোষণার আগে আমার মার্কার কিছু ব্যালট পেপার বাইরে পাওয়া গেছে। এসব আমার কর্মীরা ভেতরে এনে দেওয়ার চেষ্টা করে। এটা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয়েছে। একপর্যায়ে অতি উৎসাহী জনতা উত্তেজিত হয়ে গণ্ডগোল সৃষ্টি করেছিল।’